Header Ads

জমে উঠেছে বিভিন্ন মার্কেট ৩৫০ থেকে ১২০০ টাকায় মিলছে ঈদের পাঞ্জাবি

সেবা পোস্ট ই-সেন্টারের আদর্শ

ছবি: প্রতিনিধি
আসন্ন পবিত্র ঈদুল ফিতরকে কেন্দ্র করে জমে উঠেছে রাজধানীর ছোট-বড় মার্কেটগুলো। ছেলে, মেয়ে কিংবা মা-বাবার পছন্দের পোশাক কিনতে ছুটছেন এসব মার্কেটে। এবার ঈদকে কেন্দ্র করে যুবকদের পাশাপাশি পুরুষদের পছন্দে রয়েছে প্রিন্টের পাঞ্জাবি।
রাজধানীর বিভিন্ন মার্কেট ঘুরে দেখা গেছে, সুতি, সিল্ক, হাফসিল্ক পাঞ্জাবির পাশাপাশি মানুষের নজর কেড়েছে এন্ডি সিল্ক কাপড়ের অ্যামব্রয়ডারি, স্ক্রিন প্রিন্ট ও হাতের কাজের নতুন পোশাক। তাছাড়া ঈদকে সামনে রেখে অন্য সময়ের তুলনায় বুটিক হাউসগুলো একটু বেশি দাম নিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে অনেক ক্রেতা। তবে দাম বেশি হলেও পছন্দের পাঞ্জাবি কিনতে পেরে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করছেন অনেক ক্রেতা।
রাজধানীর এলিফ্যন্ট রোডের পাঞ্জাবি বিক্রেতা আঃ জলিল বিডি২৪লাইভকে বলেন, ‘বড়দের পাঞ্জাবির চেয়ে ছোটদের পাঞ্জাবির দাম ও চাহিদা বেড়েছে। ছোটদের পাঞ্জাবির দাম ৩৫০ থেকে ১২০০ টাকা। আর তরুণদের জন্য পাওয়া যাবে ৪৫০ টাকায়। তবে ফ্যাশন সচেতনদের জন্য রয়েছে বিভিন্ন দামের পাঞ্জাবি।’
শাহবাগের আজিজ সুপার মার্কেটে পাঞ্জাবী কিনতে আসা ঢাকা কলেজের ছাত্র আদিব মাহমুদ বলেন, ‘বছরের প্রতিটা মাসেই কিছু না কিছু কেনা হয়। কিন্তু ঈদ আসলেই শখ করে একটা পাঞ্জাবি কিনি। এবার অনেক সুন্দর সুন্দর পাঞ্জাবি বাজারে উঠেছে। দাম একটু বেশি হলেও কিনতেতো হবে।’
দেখা গেছে, বাহারি রঙের পাঞ্জাবি ঝুলছে মার্কেট গুলোতে। চাহিদারও কমতি নেই। তবে দাম নিয়ে অনেকের মনেই আক্রোশ। কারণ কাপড় কিনে এসব পাঞ্জাবি বানালে দামের থেকে অনেক কম খরচে পাওয়া যেতো।
সাদা পাঞ্জাবির পাশাপাশি বরাবরের মতো প্রাধান্য পেয়েছে কালো, সবুজ, নীল, বেগুনি, গেরুয়া, লাল, মেরুন, অফ হোয়াইট, পার্পেল রং এর পাঞ্জাবিগুলো। সুতার কাজের হালকা নকশার পাঞ্জাবিও বেশ ভালই চলছে। ডিজাইনে রয়েছে নানা ধরনের সুতার কাজ, অ্যামব্রয়ডারি, হ্যান্ড পেইন্ট, ব্লক, স্ক্রিন প্রিন্ট ইত্যাদি। বিপণী বিতানে ভারতীয় সুতি, জুট, মাইসুর, নরমাল, চাঁদনী, ফুল ইত্যাদি।

No comments

Powered by Blogger.