Header Ads

কি ভাবে ফেসবুক হতে টাকা আয় করবেন?

Standard of service Post e-center
Image may contain: text
ইউটিউব থেকে টাকা উপার্জনের জন্য অনেকতো চেষ্টা করা হলো। এবারে আসতে চলেছে তার বড় প্রতিদ্বন্দী ’ফেসবুক’। এটিও একটি বড় আর্নিং সোর্স হিসেবে দাড়াবে তা নি:সন্দেহে। এখনো বাংলাদেশে মনিটাইজেশন দেয়নি। তাই খুব বেশি বিস্তারিত কেউই জানেনা। কয়েকদিন যাবত ঘাঁটাঘাটি করছি। কিছু বিক্ষিপ্ত তথ্য পেলাম তাই আপনাদের সাথে শেয়ার করছি। মনিটাইজেশন ছাড়া অন্যান্য সবগুলোতে ফিচারেই এক্সেস করা যাচ্ছে, সেই তথ্য অনুযায়ীই লিখছি। আমার 39টি পেজের মধ্যে ‍দুটি পেজ মনিটাইজেশন এর জন্য উপযোগী হয়েছে কিন্তু কান্ট্রি বাংলাদেশ বলে এখনো দিচ্ছেনা। এই বছরের শেষের দিকে অথবা ২০১৯ এর প্রথম দিকে দেবে বলে জানিয়েছে, বর্তমানে ২৬টি দেশে মনিটািইজেশন চালু করা হয়েছে। মনিটাইজেশন পাওয়ার জন্য কি কি লাগবে তা অনেকেই জেনে গেছেন। তারপরো একটু ডিটেইলস বলছি।
(১) দশ হাজার লাইক বা ফলোয়ার থাকতে হবে আপনার পেজে। শুধু এটুকুই বলেছে ফেসবুক। এখন ব্যক্তিগত আইডির ফ্রেন্ডদেরকে থেকে কনভার্ট করে লাইক বানালে অথবা পেজ মার্জ করলে বা বুষ্ট করে আনলে হবে কিনা সে সংক্রান্ত কোন তথ্য জানা নেই। এই প্রশ্নটা আসবে বলে আগেই উত্তর দিয়ে রাখছি।
(২) বিগত ৬০ দিনের মধ্যে ৩০,০০০ মিনিট ভিউ থাকতে হবে। এখানে শর্ত হচ্ছে ভিউ গুলো ৩ মিনিট ডিউরেশনের ভিডিও হতে কম পক্ষে ১ মিনিট করে দেখেছে এমন হতে হবে। অর্থাৎ যদি ২ মিনিটের ভিডিও থেকে ১ মিনিট করে দেখে তাহলে তা কাউন্ট হবেনা আবার যদি ৫/১০ মিনিটের ভিডিও থেকে ১ মিনিটের কম দেখে তাহলেও কাউন্ট হবেনা। একেবারে সোজা শর্ত যে ভিডিওটি দেখবে তার ডিউরেশন তিন মিনিট বা তার উপরে হতে হবে। এবং সেই ভিডিও থেকে এক মিনিট করে দেখলে তবেই তা কাউন্ট হবে। এই শর্তের অধীনে ৩০,০০০ মিনিট হতে হবে। এটি একটি ভয়াবহ কঠিন শর্ত। ভাইরাল ভিডিও বা খুব নিয়মিত না হলে এমনটা পাওয়া কঠিনই হবে। তবে সুখের বিষয় হলো যে লাইভ ভিডিও দিয়ে মনিটাইজেশন পাওয়া যাবে সেটা নিশ্চিত। কারণ আমার একটা পেজে শুধুই লাইভ ভিডিও।
(৩) মনিটাইজেশনের জন্য কিছু পেজ ষ্ট্যার্ন্ডাড রুলস দিয়েছে, তাও ইউটিউবের চাইতে অনেক কঠিন বটে। মনিটাইজেশনের পেজ ষ্ট্যান্ডার্ড রুলস নিয়ে অনেকগুলো পর্ব লেখা যাবে তাই আর এখানে বলছিনা। ইউটিউবের যা যা শর্ত ছিলো তার সবই প্রায় এখানে আছে, কিন্তু ফেসবুকের পরিধি বেশী থাকার কারণে আরো অনেক বেশী রুলস এখানে যোগ করা হয়েছে। প্রতিদিনই আপনার পেজটি চেক হবে যে পেজটি মনিটাইজেশন উপযোগী আছে কিনা।
স্লাইড শো নিয়ে ইউটিউব কোন কথা অফিশিয়ালি না বললেও ফেসবুক একেবারে উল্লেখ করে বলে দিয়েছে যে স্লাইড শো ভিডিওর মনিটাইজেশন দিবেনা। এরই মধ্যে পেজের জন্য ইউটিউবের মতোই ড্যাশবোর্ড ও অন্যান্য টুলস দিয়ে দিয়েছে। যা আপনারা ইচ্ছা করলে https://business.facebook.com/creator/studio লিংক থেকে চেক করে দেখতে পারেন। যাদের আইডির সাথে ফেসবুক পেজ আছে তারা প্রথমে পেজ সিলেক্ট করে কোন একটি পেজের ষ্ট্যাটাস দেখতে পারেন। এই টুলসে কনটেন্ট লাইব্রেরী (ভিডিও ম্যানেজার), ইনসাইট (এনালাইটিকস), মনিটাইজেশন (চ্যানেল ষ্ট্যাটাস), রাইটস ম্যানেজার (কপিরাইট ম্যাচ টুলস), সাউন্ড কালেকশন (ইউটিউব লাইব্রেরী) দেয়া হয়েছে। ব্রাকেটে ইউটিউবের সমমানের টুলসগুলোর নাম বলা হয়েছে বোঝার সুবিধার জন্য। সব কিছুই মোটামুটি স্বয়ং সম্পূর্ণ মনে হয়েছে, শুধু ইনসাইটকে ইউটিউবের মতো সমৃদ্ধ মনে হয়নি, যেমন ট্রাফিক সোর্স এখান থেকে বোঝার উপায় নেই, হয়তো সেটা পেজের টুলসে থাকার কারণে এখানে আর পুনরায় দেয়া হয়নি।উপরে ডানদিকে ইউটিউবের মতো আপলোড ভিডিও ও গো লাইভ নামে অপশন দেয়া হয়েছে। যেহেতু প্রথম থেকেই রাইটস ম্যানেজার বা কপিরাইট টুলস দেয়া হয়েছে তাই চুরিদারির অপশন এখানে থাকবেনা, প্রথম দিন থেকেই মাইর শুরু। যারা ইউটিউবিং করেন তাদের কাছে ইন্টারফেসটি পরিচিতই মনে হবে। ফেসবুক এর টার্মস এন্ড কন্ডিশন মোটামুটি ইউটিউবের মতোই কিন্তু আরো বেশী বিস্তারিত। ইউটিউবের মতো এখানে অনেক ধরনের বিজ্ঞাপন নেই, শুধুমাত্র ভিডিওর মাঝখানে (এডব্রেক) আনস্কিপেবল ভিডিও বিজ্ঞাপণ দেখাবে। আপনাদের মাথায় এই লেখাটি পড়ে প্রথমেই প্রশ্ন আসবে যে, তাহলেকি আমি ইউটিউবের ভিডিওগুলো ফেসবুকে দিতে পারি? উত্তর হচ্ছে, হ্যা অবশ্যই পারেন, কিন্তু পুরোপুরি নিজের না হলে এবং তাদের টার্মস এন্ড কন্ডিশনে না হলে কোন লাভ নেই। আর আপনি যদি রিয়েল ইউনিক কনটেন্ট ক্রিয়েটর হোন তাহলে এখনি আপলোড করে ফেলুন। কারণ যে কেউ আপনার ভিডিও ডাউনলোড করে তার পেজে আপলোড করে ফেলতে পারে। তাতে করে কপিরাইট মালিকানার ঝামেলা তৈরী হওয়াই স্বাভাবিক। লেখার শুরুতেই বলেছি, ফেসবুক মনিটাইজেশন এখনো পুরোপুরি জানিনা তাই আপনাদের খুব বেশী তথ্য দিতে পারছিনা, যতটুকু আছে তাও পুরোটা লিখতে পারছিনা কারণ পোষ্ট বড় হয়ে যাচ্ছে। প্রতিনিয়ত জানার চেষ্টা করছি, যা জানতে পারবো তা আপনাদের সাথে শেয়ার করবো।আপনাদের অনেক প্রশ্নের জবাব হয়তো দিতে পারবোনা। ভালো থাকুন, নতুন ভাবে চিন্তা করুন।
হ্যাপি ইউটিউবিং, সরি; হ্যাপি ফেসবুকিং
লেখক ও সংগ্রহে: কামরুল ইসলাম রুবেল

No comments

Powered by Blogger.