Header Ads

রান্নাঘরেই রয়েছে ত্বকের ময়েশ্চারাইজার!

সেবা পোস্ট ই-সেন্টারের আদর্শ


সুন্দর ত্বকের প্রধান চিহ্ন হল তা অবশ্যই কোমল হতে হবে। কিন্তু প্রতিদিনের ধুলাবালি আর রৌদ্রের তাপের কারণে আমাদের ত্বক অনেকটাই খসখসে হয়ে যায়। তাই ত্বকের কোমলতা ফিরে পেতে আপনার রান্নাঘরের সামগ্রী ব্যবহার করেই পেতে পারেন উপকার। তাহলে আসুন জেনে নেয়া যাক সে উপকরণ সম্পর্কে-
১। এভোকাডো:
এভোকাডোতে প্রচুর ফ্যাটি এসিড, ভিটামিন এবং এন্টিওক্সিডেন্ট আছে যা ত্বকের যে কোন সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে। এতে থাকা উচ্চমাত্রায় ভিটামিন এ ত্বকের মৃতকোষগুলোকে জীবিত করে। প্রথমে এভোকাডো চটকিয়ে পেস্ট করে নিন। এরপর ত্বকে মাখুন। ১০ থেকে ১৫ মিনিট পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটা দিনে একবার করে করবেন। অথবা পাকা এভোকাডোর অর্ধেক এবং সাথে আধা কাপ মধু মিশিয়ে চটকিয়ে নিন। তারপর শুষ্ক ত্বকে মাখিয়ে ১০-১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এটা সপ্তাহে ২ বার ব্যবহার করতে পারেন।
২। কলা:
অর্ধেকটা কলা এবং চার টেবিল চামচ টকদই মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিয়ে। এবার প্যাকটি ত্বকে ভাল করে লাগিয়ে দিয়ে। ২০ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। কলা এবং টকদইয়ের মিশ্রণ ত্বক ময়েশ্চারাইজ করে। এর সাথে ত্বকের উজ্জ্বলতাও বৃদ্ধি করে দেয়।
৩। অলিভ অয়েল:
অনেকেই বডি লোশনের পরিবর্তে অলিভ অয়েল ব্যবহার করে থাকেন। এই অলিভ অয়েল শরীরের অন্যান্য অংশের পাশাপাশি মুখেও ব্যবহার করতে পারেন। অলিভ অয়েল সরাসরি মুখে ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়া আপনার প্রতিদিনকার ব্যবহৃত লোশনের সাথে অলিভ অয়েল মিশিয়ে নিতে পারেন। গোসলের আগে অলিভ অয়েল হাত-পা সহ সারা শরীরের ম্যাসাজ করুন। তারপর গোসল করুন। গোসল শেষে হালকা কোন ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে পারেন।
৪। অ্যালোভেরা:
অ্যালোভেরা পাতা থেকে জেল বের করে নিন। অ্যালোভেরা জেলের সাথে দুই টেবিল চামচ গুঁড়ো দুধ মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এই প্যাকটি মুখ এবং ঘাড়ে ব্যবহার করুন। ১০-১৫ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। অ্যালোভেরা ত্বকের শুষ্কতা দূর করে ত্বকের অন্যান্য সমস্যা দূর করে থাকে।
৫। লেবুর রস:
লেবুর রসে থাকা এন্টিওক্সিডেন্ট ত্বকের পরিচর্যায় সরাসরি সাহায্য করে। এটা মৃত চামড়া ঝরিয়ে ফেলে এবং ত্বকে সতেজ করে। লেবুর ফালি করে ত্বকে ভালভাবে ঘষুন। ১০ মিনিট পর গোসল করুন। এটা প্রতিদিন ব্যবহার করতে পারেন। মুখের ব্রণ দূর করতেও লেবু অনেক কার্যকরী।
যেকোন লোশন বা ক্রিম ত্বক কালো করতে পারে। কিন্তু ঘরোয়া এই ময়োশ্চারাইজগুলো ত্বক কালো করে না বরং নিয়মিত ব্যবহারে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পেয়ে থাকে।

No comments

Powered by Blogger.