Header Ads

১২ বছরের কম বয়সী ছেলেকে বিয়ে করল ৩১ বছর বয়সের নারী! অতঃপর...

সেবা ই-সেন্টারের আদর্শ
প্রেম মানে কোনো বাধা এ কথা আবারও সত্য হলো। তা না হলে নিজের থেকে ১২ বছরের ছোট ছেলেকে কি করে বিয়ে করে একজন নারী। এ ঘটনার জন্য অবশ্য প্রেমিক-প্রেমিকাকে শাস্তি পেতে হয়েছে।
ভ্রাম্যমাণ আদালত হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে প্রেমিক-প্রেমিকার ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন। সরকারি আদেশ অমান্য করার দায়ে এই দু’জনকে এ কারাদণ্ড দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইউএনও মো. মামুন খন্দকার।
দণ্ডিত প্রেমিকের নাম রাজু মিয়া (১৯)। তিনি উপজেলার খাগাউরা ইউনিয়নের হরিপুর গ্রামের মো. আলী হুসেনের ছেলে।
অপরদিকে, দণ্ডিত প্রেমিকার নাম মোছা: স্বপ্না আক্তার (৩১)। তিনি হবিগঞ্জ সদর উপজেলার মারাপইল গ্রামের মৃত কেরামত আলীর মেয়ে।
মঙ্গলবার (১৫ মে) রাতে ইউএনও’র কার্যালয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হয়। সরকারি আদেশ অমান্য করার দায়ে রাজু-স্বপ্না জুটিকে এ কারাদণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইউএনও মো. মামুন খন্দকার।
জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে দুজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। বেশ কিছুদিন ধরে প্রেমিক রাজু মিয়াকে বিয়ে করার জন্য চাপ প্রয়োগ করে প্রেমিকা স্বপ্না আক্তার।
একপর্যায় তারা তাদের প্রকৃত বয়স গোপন করে কোর্টে গিয়ে বিয়ে করেন। আর এই বিয়ের জন্য বাধা হয়ে দাঁড়ায় প্রেমিক রাজুর বয়স। প্রেমিকা স্বপ্নার চেয়ে ১২ বছরের ছোট তিনি।
এ বিষয়টি প্রেমিকের পরিবারে জানাজানি হলে, প্রেমিকের বাবা থানায় লিখিত অভিযোগ দেন।
অভিযোগ পাওয়ার পর থানার এসআই নাজমুল হক দু’জনকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সমর্পন করেন।
ইউএনও মো. মামুন খন্দকার প্রথমে প্রেমিক-প্রেমিকাকে বিয়ে না করার জন্য বুঝানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু কে শোনে কার কথা নাছোড়বান্দা প্রেমিক-প্রেমিকা কিছুতেই এটা বুঝতে নারাজ। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে প্রেমিক-প্রেমিকাকে ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের রায় প্রদান করেন তিনি।

No comments

Powered by Blogger.